ভিপি নূরের মামলাকে মিথ্যা বললেন ড. কামাল, সব ধরনের আইনি সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নূরের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলা মিথ্যা বলে দাবি করেছেন গণফোরামের সভাপতি ও প্রবীণ আইনজীবী ড. কামাল হোসেন।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে নূরুকে গ্রেফতার ও হয়রানির তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। প্রয়োজনবোধে গণফোরাম ভিপি নূরসহ আন্দোলনরত সব নেতাদেরকে আইনি সহায়তা দেয়া হবে বলেও জানান ড. কামাল।

ড. কামাল হোসেন বলেন, ক্ষমতাশীল দলের একটি বিশেষ অঙ্গসংগঠনের মহিলা কর্মীদের দিয়ে বেশ কয়েকবার মিথ্যা ও নোংরা মামলা দিয়ে নূরকে হয়রানি করা হচ্ছে। অতীতেও রাজনৈতিক নেতাদের বিরুদ্ধে গরু চুরির মামলা দিয়ে হয়রানি করেছিল কিন্তু শেষ রক্ষা পায়নি।

সরকারকে এই রাজনৈতিক নোংরামী বন্ধের আহ্বান জানিয়ে ভিপি নূরের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সব মামলা দ্রুত প্রত্যাহারের দাবি জানান ড. কামাল।

আরও সংবাদ

টাঙ্গাইলে ছাত্র অধিকার পরিষদের মানববন্ধনে ছাত্রলীগের হামলা

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ সংগঠনের কয়েকজন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার দুপুরে প্রেস ক্লাবের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ জেলা শাখার সমন্বয়ক সদস্য মোহাম্মদ আলিফ অভিযোগ করেন, ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা এবং সোমবার রাতে ঢাকায় নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জের প্রতিবাদে টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

প্রায় ৩০ মিনিট কর্মসূচি চলার পর দুপুর ১২টার দিকে জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক তানভীরুল হাসান হিমেলের নেতৃত্বে ২০-২৫ জন নেতাকর্মী লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে সংগঠনের অন্তত ৫ জন আহত হন। এ সময় এনটিএন নিউজের চিত্রগ্রাহক সুজন মিয়াও তাদের হামলার শিকার হন। মুহূর্তেই মানববন্ধন কর্মসূচি পণ্ড হয়ে যায়।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের জেলা সমন্বয়ক কাওসার আহম্মেদসহ বিভিন্ন ইউনিটের কর্মীরা অংশ নেন।

টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক তানভীরুল ইসলাম জানান, ভিপি নূরের সমর্থকরা মানববন্ধনে অংশ নিয়ে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার জন্য অকথ্য ভাষায় বক্তব্য দেয়। এজন্য তাদের সেখান থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়া তাদের কোনো মারপিট করা হয়নি।