বিশ্বাসঘাতক আরব দেশগুলোর কোনো ক্ষমা নেই: হানিয়া

যেসব আরব দেশ অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেবে, ইতিহাস তাদের কোনো দিন ক্ষমা করবে না বলে মন্তব্য করেছেন ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের রাজনৈতিক প্রধান ইসমাইল হানিয়া।

সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের সঙ্গে ইহুদিবাদী দেশটির সাম্প্রতিক চুক্তি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মিডল ইস্ট আইকে তিনি বলেন, কোনো আরব দেশের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক শেষ পর্যন্ত সেই দেশটির জন্যই হুমকি হয়ে দাঁড়াবে।

হানিয়া বলেন, আমরা জানি– ওই সব আরব নেতার চেয়ে ইসরাইলি নেতারা ভালো। আমরা জানি, তারা কীভাবে ভাবেন। আরব আমিরাতে আমাদের ভাইদের তাই বলতে চাই– এই চুক্তির কারণে তাদের পরাজয় ঘটবে। কারণ ইসরাইলের একমাত্র আগ্রহ হচ্ছে, ইরানের কাছাকাছি এলাকায় সামরিক ও অর্থনৈতিক পাদদেশ তৈরি করা।

‘তারা আপনাদের দেশকে সিঁড়ির ধাপ হিসেবে ব্যবহার করবে। আমিরাত ইসরাইলি ‘লাঞ্চপ্যাড’ হিসেবে ব্যবহৃত হোক, তা আমরা কখনও দেখতে চাই না।’

আমিরাতের নাগরিকদের ‘ভাই’ বলে সম্বোধন করেন হানিয়া, যারা ফিলিস্তিনিকে ঐতিহাসিকভাবে সমর্থন দিয়েছেন। কাজেই হামাস সেই দিনটির অপেক্ষায় আছে, যখন আমিরাতবাসী এ চুক্তির সঙ্গে নিজেদের সম্পর্ক অস্বীকার করবেন।

তিনি বলেন, ইহুদিবাদী প্রকল্প সম্প্রসারণবাদী প্রকল্প। তাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে– একটি বৃহৎ ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা। কাজেই আমিরাত, বাহরাইন কিংবা সুদানি নাগরিকরা তাদের প্রকল্পের বাহন হিসেবে ব্যবহৃত হোক, তা আমরা দেখতে চাই না। ইতিহাস তাদের প্রতি করুণা করবে না। মানুষ কখনও ভুলে যাবে না এবং মানবাধিকার আইন কখনই তাদের ক্ষমা করবে না।

আরও সংবাদ

যুদ্ধ-পোক্ত আজারবাইজানের রাস্তায় পাকিস্তান, তুরস্কের পতাকা

গত সপ্তাহে সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে আজারবাইজানের সড়কে সেদেশের জনগণকে পাকিস্তান ও তুরস্কের পতাকা ওড়াতে দেখা গেছে। এতে দেখা যায় দেশটির কোন এক নগরীতে তিনটি গাড়িতে চড়ে যুবকরা পাকিস্তান ও তুরস্কের পতাকা দোলাতে দোলাতে যাচ্ছে।

পাশের কোন বাড়ি থেকে হয়তো ছোট্ট এই ভিডিও ক্লিপটি তোলা। যুবকদের এভাবে পতাকা দোলানো মূলত পাকিস্তান ও তুরস্কের প্রতি তাদের ভালোবাসার প্রকাশ। আর্মেনিয়ার সঙ্গে সাম্প্রতিক সংঘাতি আজারবাইজানকে জোরালো সমর্থন দেয় পাকিস্তান ও তুরস্ক।

পাকিস্তানের প্রতি এরকম ভালোবাসা প্রকাশের ছবি গত মাস থেকেই সোস্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে।

চলতি মাসের গোড়ার দিকে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ পাকিস্তানকে ধন্যবাদ জানান তার দেশের প্রতি সমর্থন প্রকাশের জন্য।

এক ভিডিওতে দেখা যায়, প্রেসিডেন্ট পাকিস্তানের প্রশংসা করে বলছেন: আর্মেনিয়ার বিরুদ্ধে ন্যায্য লড়াইয়ে সারা বিশ্বের বন্ধুপ্রতীম দেশগুলোর সমর্থন আজারবাইজানের জন্য অতীব জরুরি।

পাকিস্তান ও তুরস্কের পতাকা দিয়ে বাড়ি সাজানোর ছবিও ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়েছে।

Source জিভিএস