আমি নামে মাত্র মুসলমান ছিলাম, রাসুলের সীরাত আমাকে পরিবর্তন করেছে: ইমরান খান

আমি নামেপাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আমি একজন নামে মাত্র মুসলমান ছিলাম। বাবা আমাকে ডেকে ডেকে জুমা পড়তে নিয়ে যেতো। যখন রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জীবনী(সীরাত) পড়া আরম্ভ করলাম আমার জীবনে পরিবর্তন আসা শুরু করলো। মঙ্গলবার ইসলামাবাদে রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সীরাত শীর্ষক সেমিনারে নিজের বক্তব্য দানকালে ইমরান খান এ কথা বলেন।

ইমরান খান বলেন, আমি যখন ক্রিকেট খেলছিলাম তখন বশির নামের একজন বুযুর্গের সাথে সাক্ষাৎ হয়। ওই বুযুর্গ আমাকে দ্বীনের প্রতি উদ্বুদ্ধ করতেন। তিনি আমার ঈমানী রাস্তার সমস্যাগুলো দূর করেছেন। তিনি বলতেন, ‘কুরআনের সঠিক বুঝ অন্তরে তখনই আসবে যখন অন্তরে ঈমানের আলো থাকবে’। বুযুর্গ আমাকে বলতেন, যখন আল্লাহর উপর বিশ্বাস চলে আসে তখন জীবনের পরিবর্তন এমনি শুরু হয়ে যায়।

এই দ্বীন অনেক জিহাদ-পরিশ্রমের মাধ্যমে এ পর্যন্ত এসেছে। যা আমাদের হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের দেখানো রাস্তা। জীবনে দুটি রাস্তা হয়ে থাকে, একটি নিজে চলার পথ আরেকটি মানুষকে দায়িত্বশীল বানায়। উনি খুব বেশি এ কথাটা বলতেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন যে সফলতা রাষ্ট্রক্ষমতার মধ্যে নেই। সফলতা অনুভূতি ও দয়ার মাধ্যমে তৈরি হয়।

ইমরান খান বলেন, আমরা উচ্চ শিক্ষাতে বিশেষকরে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ে রাসুলের সীরাতকে পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করেছি। বদর যুদ্ধের ১১ বছর পর রোমানরা খালিদ ইবনে ওয়ালিদের পায়ের নিচে এসে পতিত হয়। রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এতো মহান নেতা ছিলেন যে মাত্র ১১ বছরে মুসলমানদেরকে পরাশক্তিতে পরিণত করেছেন। বিজ্ঞানীরা রিসার্চ করা শুরু করেছে, রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কীভাবে এতদ্রুত মানুষকে পরিবর্তন করেছেন!

শেষ নবী হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে আল্লাহ তায়ালা ‘রাহমাতুল্লিল আলামীন'(সারাবিশ্বের শান্তির বার্তাবাহক) বলে আখ্যায়িত করেছেন। আল্লাহ রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সারা জীবনীকে ইতিহাসের অংশ বানিয়ে রেখেছেন। আমি বর্তমান যুবকদের উদ্দেশ্যে বলবো, রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কীভাবে সাধারণ মানুষকে মহামানবে পরিনত করেছেন তা অনুসরণ করুন।

এ পর্যন্ত কোনো মানুষ এমন করে দেখাতে পারেনি যা আমাদের নবী করে গেছেন। ইমরান খান আরো বলেন, আমি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মানুষকে রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আদর্শে প্রভাবিত করার লক্ষে সেমিনার করার আবেদন করবো। প্রতি বছর আমরা বার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করবো যেখানে বাহির থেকেও স্কলারগণ উপস্থিত হবেন। মানুষকে এটা বুঝাবো যে আল্লাহ রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে কেনো রাহমাতুল্লিল আলামীন আখ্যায়িত করা হয়েছে! সূত্র, উর্দু পয়েন্ট